1. [email protected] : editor :
শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:২১ পূর্বাহ্ন

ঘুম ভাঙার পর যে দোয়া পড়লে উদ্দেশ্য পূরণ হয়

দৈনিক সময়ের সংবাদ অনলাইন
  • আপডেট : বুধবার, ২৬ অক্টোবর, ২০২২
  • ৬৭ দেখা হয়েছে

গভীর রজনীতে অনেক সময় নিজের অজান্তেই আমাদের ঘুম ভেঙে যায়। সে সময় আমরা হয়তো জাগ্রত হয়ে আবার ঘুমিয়ে যাই বা ভিন্ন কোনো কাজ করে থাকি। হাদিসে এসেছে, কেউ যদি ঘুম ভাঙার পর আল্লাহর কাছে এই বিশেষ পদ্ধতিতে দোয়া করে, আল্লাহ তাআলা তার দোয়া কবুল করেন।

প্রকৃত মুমিন সুযোগের অপেক্ষায় থাকে মোক্ষম সময়ের জন্য, যেকোনো সময় আল্লাহ তার উদ্দেশ্য পূরণ করবেন।

মূলত এ সময় দোয়া কবুল হওয়ার বিশেষ কারণ রয়েছে। তা হচ্ছে, এমন ব্যক্তি ঘুম থেকে জাগ্রত হয়ে সঙ্গে সঙ্গে আল্লাহকে স্মরণ করবে এবং তাঁর কাছে প্রার্থনা করবে যার অন্তর সর্বদা আল্লাহর সঙ্গে সমপৃক্ত। ঘুম থেকে জাগ্রত হয়েই আল্লাহকে স্মরণ তাঁর কাছে অনেক পছন্দনীয়। তাই যে ব্যক্তি এ অবস্থায় প্রার্থনা করবে আল্লাহ তার দোয়া কবুল করবেন। হাদিসে এসেছে, ওবাদাহ ইবনে সামিত (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী (সা.) বলেছেন, যে ব্যক্তি রাতে জেগে ওঠে (উপরোক্ত) দোয়া পড়ে—‘লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াহদাহু লা-শারিকা লাহু, লাহুল মুলকু ওয়া লাহুল হামদু, ওয়াহুওয়া আলা কুল্লি শাইয়্যিন কাদির, ওয়া সুবহা নাল্লাহি ওয়াল হামদু লিল্লাহি ওয়ালা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াল্লাহু আকবার, ওয়ালা হাওলা ওয়ালা ক্যুওয়াতা ইল্লাবিল্লাহ’, অর্থ : এক আল্লাহ ছাড়া প্রকৃত কোনো ইলাহ নেই। তিনি এক, তাঁর কোনো শরিক নেই। রাজ্য তাঁরই। যাবতীয় প্রশংসা তাঁরই। তিনিই সব কিছুর ওপর শক্তিমান। যাবতীয় হামদ আল্লাহরই জন্য, আল্লাহ তাআলা পবিত্র, আল্লাহ ছাড়া সত্য কোনো ইলাহ নেই। আল্লাহ মহান, গুনাহ থেকে বাঁচার এবং নেক কাজ করার কোনো শক্তি নেই আল্লাহর তাওফিক ছাড়া। অতঃপর বলে, হে আল্লাহ, আমাকে ক্ষমা করুন বা (অন্য কোনো) দোয়া করে, তাঁর দোয়া কবুল হয়। অতঃপর অজু করে (নামাজ আদায় করলে) তার নামাজ কবুল হয়। (সহিহ বুখারি, হাদিস : ১১৫৪)

 

তবে এই দোয়া কবুল হওয়ার জন্য শর্ত হচ্ছে ঘুমানোর আগে পবিত্রতা তথা অজুর সঙ্গে ঘুম যাওয়া। যেমনটি অন্য আরেক হাদিসে এসেছে। মুআজ ইবনে জাবাল (রা.) থেকে বর্ণিত, নবী (সা.) বলেছেন, যে মুসলিম ব্যক্তি পবিত্র অবস্থায় ও মহান আল্লাহকে স্মরণ করে রাত কাটায় (ঘুমায়) এবং রাতে জেগে আল্লাহর কাছে  দুনিয়া ও আখিরাতের কল্যাণ লাভের দোয়া করে, আল্লাহ তাকে তা দান করেন। (সুনানে আবু দাউদ, হাদিস : ৫০৪২)

এখানে লক্ষণীয় বিষয় হচ্ছে, বান্দা ঘুমের ঘোরে থেকেও তার সৃষ্টিকর্তাকে ভোলে না। সে সময় আল্লাহকে স্মরণ করে এবং আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করে। এটাই আল্লাহর কাছে অনেক পছন্দনীয় আমল।

Please Share This Post in Your Social Media

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

এই বিভাগের আরো সংবাদ
দৈনিক সময়ের সংবাদ.কম প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Theme Customized BY NewsFresh.Com
WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com