1. [email protected] : editor :
শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৫:১৫ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
‌কোনো অজুহাত নয়, স্কুল খুলে দিন : ইউনিসেফ পুলিশ সদস্যদের উচ্চশিক্ষায় বিশ্ববিদ্যালয় করা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শিল্পী সমিতির সভাপতি ইলিয়াস কাঞ্চন, সেক্রেটারি জায়েদ দেশে করোনায় ২০ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ১৫ হাজার ৪৪০ বিএফডিসির সভাপতি ইলিয়াস কাঞ্চন এবং সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন নিপুণ নারায়ণগঞ্জে পোশাক কারখানায় ভয়াবহ আগুন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলছে লবিস্ট নিয়োগে কোটি ডলার ব্যয়ের উৎস বিএনপিকে ব্যাখ্যা করতে হবে : সংসদে প্রধানমন্ত্রী ‘ঘরোয়া’ কর্মসূচিতে যাচ্ছে বিএনপি জাতির পিতাকে হত্যার পর রাজনীতি নিষিদ্ধ সত্ত্বেও প্রতিবাদ করেছেন কবিরা : প্রধানমন্ত্রী

দেশ উন্নত হওয়াতেই জনগণ ভোট দিতে চায় না : ইসি সচিব

দৈনিক সময়ের সংবাদ অনলাইন
  • আপডেট : বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৩৬৮ দেখা হয়েছে
দেশ উন্নত হওয়াতেই জনগণ ভোট দিতে চায় না : ইসি সচিব
ফাইল ছবি

 

দেশ উন্নত হওয়াতেই জনগণের মাঝে ভোট না দেয়ার মানসিকতা দেখা দিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সিনিয়র সচিব মো. আলমগীর। আজ বুধবার সন্ধ্যায় রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক) নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি এ কথা বলেন।

ec secretary alomgirনির্বাচন কমিশনের (ইসি) সিনিয়র সচিব মো. আলমগীর

চসিক নির্বাচন ভালো হয়েছে দাবি করে ইসি সচিব বলেন, চট্টগ্রামে ভোটার উপস্থিতি একটু কম ছিল। কারণ, যে কোনো বড় শহরে নির্বাচন হলে দেখা যায়, সেখানে ভাসমান বা বাইরের লোকজন বেশি থাকে। ফলে উপস্থিতিটা একটু কম হয়। তবুও চট্টগ্রামে ভোটার উপস্থিতি একটু বেশি আশা করেছিলাম।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, রাষ্ট্রের প্রতি সবার একটা দায়িত্ব আছে। ভোট দেয়া যে অধিকার, তা এখনকার নাগরিকরা মনে করেন না। ভোটের দিন আসলে তাদের মনে হয়, ভোট কেন্দ্রে কষ্ট করে গিয়ে কেনো ভোট দেবো? ভোট দিয়ে লাভ কী? দেখবেন উন্নত বিশ্বের দেশগুলোর জনগণেরও মনমানসিকতা এমন হয়।

 

এ সময় যুক্তরাষ্ট্রের উদাহরণ দিয়ে তিনি আরো বলেন, তারা সবদিক দিয়েই উন্নত। কিন্তু সেখানে দেখবেন, অধিকাংশ মানুষই ভোট দিতে যায় না। আমাদের দেশও এখন অনেকটা ওইরকম। উন্নত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোট না দেয়ার লক্ষণ দেখা দিয়েছে, মানসিকতার বদল হয়েছে। সবাই মনে করেন, অন্যের জন্য তিনি কেনো কষ্ট করে ভোট দিতে যাবেন।

চসিক নির্বাচনে ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে বলে বিরোধীদলের করা অভিযোগের প্রেক্ষিতে মো. আলমগীর বলেন, ৭৩৫টা কেন্দ্রের মধ্যে কেবল দুই জায়গায় ইভিএম ভাঙচুর হয়েছে। এ কারণে কেন্দ্র দুটিতে নির্বাচন স্থগিত করা হয়। নয়তো সেখানেও সুষ্ঠু নির্বাচন হতো। কাজেই ভয়ঙ্কর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়নি।

সহিংসতার পরও ভোট শান্তিপূর্ণ বলা যায় কি না, এমন এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, মোট কেন্দ্র ৭৩৫টা। এর মধ্যে মাত্র দুইটা কেন্দ্রে সহিংসতা হয়েছে। পারসেন্টেজ করলেই দেখতে পারবেন, শান্তিপূর্ণ কত এবং অশান্তিপূর্ণ কত?

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো সংবাদ
 দৈনিক সময়ের সংবাদ.কম প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Theme Customized BY NewsFresh.Com
WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com