দুই ওসি ও এসআইয়ের বিরুদ্ধে মামলা

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষার্থী ও সাংবাদিককে নির্যাতনের ঘটনায় রমনা থানার দুই ওসি ও এক এসআইয়ের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। নির্যাতনের শিকার নাজমুল হুদা সুমন গতকাল মঙ্গলবার বাদী হয়ে মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে এই নালিশি মামলা করেন। মামলায় মারধর, গুরুতর জখম, চুরি ও টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ করেছেন তিনি। ওই তিনজন ছাড়াও মামলায় অজ্ঞাতপরিচয় আরো ৮-১০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

ঢাকা মহানগর হাকিম আনোয়ার সাদাত গতকাল বাদীর জবানবন্দি গ্রহই করেন। শুনানি শেষে হাকিম অভিযোগটি সহকারী কমিশনার (এসি) পদমর্যাদার নিচে নয়, এমন কর্মকর্তা দিয়ে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনারকে নির্দেশ দেন। আগামী ১০ মার্চ প্রতিবেদন দাখিলের দিন ধার্য করা হয়েছে।

নাজমুল বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র। তিনি নিউ এজ পত্রিকার বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি এবং মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমান হল শাখা ছাত্রলীগের গণশিক্ষাবিষয়ক সম্পাদক। তাঁর বন্ধু খায়রুজ্জামান শুভ পড়েন ব্যবস্থাপনা বিভাগের তৃতীয় বর্ষে।

আসামিরা হলেন রমনা থানার ওসি মশিউর রহমান, ওসি (তদন্ত) আলী হোসেন, এসআই মেহেদী হাসান সুমন এবং অজ্ঞাতপরিচয় ৮-১০ জন।

মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে, গত ১ ফেব্রুয়ারি বিকেলে নাজমুল তাঁর বন্ধু শুভকে নিয়ে মোটরসাইকেলে রাজধানীর বিজয়নগর এলাকায় রাজমনি সিনেমা হলের সামনে পৌঁছালে ট্রফিক পুলিশ তাঁদের থামায়। মোটরসাইকেলে দুজন ওঠা নিষিদ্ধ বলেই তাঁদের ওপর চড়াও হয়। নাজমুল সাংবাদিক পরিচয় দিলে দায়িত্বরত এসআই মেহেদী হাসান লাঠি দিয়ে তাঁকে বেধড়ক পেটান। পুলিশ নাজমুল ও শুভর পকেটে থাকা দুটি মোবাইল ফোন এবং আট হাজার ২৭০ ছিনিয়ে নেয়। পরে ওই এসআই দুজনকে গাড়িতে তুলে তাঁদের থানায় নিয়ে যান। থানায় অজ্ঞাতপরিচয় ৮-১০ জন পুলিশ সদস্য ফের তাঁদের বেধড়ক পিটিয়ে গুরুতর জখম করেন। পুলিশ সদস্যরা তাঁদের ক্রসফায়ারে দেওয়ার ভয় দেখান এবং বিএনপি-জামায়াতের দালাল বানিয়ে মামলার আসামি করে জেলে পাঠানোর হুমকি দেন।

print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


*

x

Check Also

110

ঢাবির ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় পাসের হার ১০.৯৮ শতাংশ

অফিসে আনুষ্ঠানিকভাবে এই ফলাফল প্রকাশ করেন। পরীক্ষার বিস্তারিত ফলাফল এবং ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পর্কে বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট admission.eis.du.ac.bd জানা যাবে। এছাড়া DU GA লিখে রোল নম্বর লিখে ১৬৩২১ নম্বরে send করে ফিরতি SMS এ ভর্তিচ্ছুরা তার ফলাফল জানতে পারবে। পাসকৃত শিক্ষার্থীরা আগামী ১৯ সে‌প্টেম্বর হতে ১ অক্টোবর পর্যন্ত ভর্তি পরীক্ষার ওয়েবসাইটে পছন্দ তালিকা পূরণ করতে পারবে। এর আগে গত ১৪ সেপ্টেম্বর (শুক্রবার) ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। ওই দিন বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ও ক্যাম্পাসের বাইরের মোট ৫৪টি কেন্দ্রে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। বাইরের কেন্দ্রগুলো হলো বিশ্ববিদ্যালয়ের লেদার ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি ইনস্টিটিউ এবং বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল ও কলেজ। ‘গ’ ইউনিটের অধীনে আসন ...

110

ঢাবির ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে ‘গ’ ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল জানবেন যেভাবে

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদভুক্ত ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে। ১৭ সেপ্টেম্বর বেলা ১১টায় দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের কেন্দ্রীয় ভর্তি অফিসে আনুষ্ঠানিকভাবে ফল ঘোষণা করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামান। এবার ‘গ’ ইউনিটে পাসের হার ১০ দশমিক ৯৮ ভাগ। চলুন জেনে নেওয়া যাক কিভাবে জানা যাবে এই ফলাফল… মোবাইল থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গ ইউনিটের ফলাফল দেখার পদ্ধতিঃ যেকোনো মোবাইল অপারেটর থেকে DU স্পেস দিয়ে GA স্পেস দিয়ে Roll Number টাইপ করে ১৬৩২১ নম্বরে সেন্ড করলে ফিরতি এসএমএস-এ ফলাফল জানতে পারবেন। অনলাইনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গ ইউনিটের ফলাফল দেখার পদ্ধতিঃ অনলাইনে ফলাফল দেখতে http://admission.eis.du.ac.bd ঠিকানায় আপনার উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার রোল ...

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com