প্রতিবাদ করায় ভাইয়ের বউকে গণধর্ষণ

2017-08-15_6_771947

ভারতে তিন তালাকের বিপক্ষে চূড়ান্ত রায় দিয়েছে দেশটির সুপ্রিম কোর্ট । ইসলাম, হিন্দু, বৌদ্ধসহ মোট পাঁচ ধর্মের পাঁচজন বিচারকের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ মঙ্গলবার এ রায় দেন। রায়টি ৩-২ ব্যবধানে পাশ হয়।

বিচারকরা বলেন, তিন তালাকের এ বিষয়টি ভারতীয় সংবিধানের ১৪ ও ২১ নং অনুচ্ছেদের সঙ্গে সাংঘর্ষিক। এ দুইটি অনুচ্ছেদে সমতা, জীবনের নিরাপত্তা ও ব্যক্তি স্বাধীনতার কথা বলা হয়েছে।

তালাকপ্রাপ্তা পাঁচ মুসলিম নারী ও দুইটি মানবাধিকার প্রতিষ্ঠানের করা পিটিশনের প্রেক্ষিতে এ রায় দেয়া হয়েছে। এদিকে এই তিন তালাকের শিকার কয়েকজন নারীর পরিণতি সামনে নিয়ে এসেছে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম কলকাতা টোয়েন্টিফোর সেভেন।

উত্তরপ্রদেশের মুজফ্ফরনগরের বাসিন্দা এক মহিলার ৬ বছর আগে বিয়ে হয় ৷ যৌতুকের জন্য বিয়ের পর থেকেই শ্বশুরবাড়িতে তার ওপর নির্যাতন চলতে থাকে ৷ একটি গাড়ি এবং ২ লাখ টাকা দাবি করা হয় তার কাছ থেকে ৷ দাবি অনুযায়ী সবকিছু না পাওয়ায় তার উপর অত্যাচারের মাত্রা সীমা ছাড়িয়ে যেতে থাকে ৷

ওই নির্যাতিতার স্বামী তাকে তিন তালাক দেয়৷ ঘর থেকে বের করে দেওয়ারও চেষ্টা করা হয় ৷ মহিলা ঘর থেকে বেরোতে না চাইলে, তার ভাসুর এবং দেওর তাকে গণধর্ষণ করে বলে অভিযোগ ওঠে ৷ এখানেই শেষ নয় ৷ ওই মহিলাকে আগুনে ঠেলে দেওয়া হয় ৷ ঘটনা সম্পর্কে জানতে পেরেই পুলিশ উপস্থিত হয়, প্রাণে বেঁচে যায় নির্যাতিতা ৷

print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


*

x

Check Also

ভারতের যেসব নববধুদের কুমারীত্বের পরীক্ষা দিতে হয়

হিন্দুদের পুরাণ ‘রামায়ণ’-এ সীতাকে অগ্নি পরীক্ষা দিতে হয়েছিল। অনেক সীতাকে এখনও দিতে হয় অনেকটা সেইরকমই ‘অগ্নি পরীক্ষা’। সীতাদের নাম হয়তো বদলে গিয়ে কোথাও হয়েছে অনিতা বা অন্য কিছু। ঘটনাও ‘রামরাজ্য’ অযোধ্যার পরিবর্তে হয়েছে মহারাষ্ট্রের কঞ্জরভাট নামে আদিবাসীদের সমাজ। ওই সমাজের সদ্য বিবাহিত নারীদের পরীক্ষা দিয়ে প্রমাণ করতে হয় যে বিয়ের দিন পর্যন্ত তাঁদের কৌমার্য বজায় আছে। নবদম্পতির বিছানায় পাতা সাদা চাদরে রক্তের দাগ লাগলেই পাওয়া যায় প্রমাণ। তবেই সমাজ মেনে নেয় যে বিয়ের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। আর নিজের কৌমার্য প্রমাণে ব্যর্থ হলে নববধূর কপালে জোটে জুতোপেটা, অথবা বের করে দেওয়া হয় শ্বশুরবাড়ি থেকে। “আমি তখন বেশ ছোট। বছর ১২ বোধহয় ...

155510a1

ছয়টি নতুন আইনে রাষ্ট্রপতির স্বাক্ষর

বছরের শুরুতেই ছয়টি আইন কার্যকর হচ্ছে। দশম জাতীয় সংসদের চলতি ১৯তম অধিবেশনে পাস হওয়া এ সংক্রান্ত বিলগুলো আজ সোমবার রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সম্মতি পেয়েছে। সংসদ সচিবালয়ের জনসংযোগ শাখার উপ-পরিচালক মো. নূরুল হুদা এ খবর নিশ্চিত করেছেন। বিলগুলো হলো মানবদেহে অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ সংযোজন (সংশোধন) বিল ২০১৮, বাংলাদেশ কলেজ অব ফিজিসিয়ানস অ্যান্ড সার্জনস বিল ২০১৮, রাজশাহী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ বিল ২০১৮, ব্যাংক-কম্পানি (সংশোধন) বিল ২০১৮, কৃষিকাজে ভূ-গর্ভস্থ পানি ব্যবস্থাপনা বিল ২০১৮ এবং বীজ বিল ২০১৮। আরো পড়ুন ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের খসড়া চূড়ান্ত অনুমোদন  এখন গেজেট প্রকাশিত হলেই বিলগুলো আইনে পরিণত হওয়ার সব আনুষ্ঠানিকতা শেষ হবে বলে জানা গেছে। আরো পড়ুন ‘জীবনের শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত খালেদা ...

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com