সেলাই কাটার পর কেমন আছে জোড়া শিশু?

3aCVXs_1502884849

অস্ত্রোপচারে পৃথক করা গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের ১০ মাস বয়সি জোড়া শিশু তোফা ও তহুরা এখন ভাল আছে।

বুধবার (১৬ আগস্ট) তাদের সেলাই কাটা হয়েছে। আগামীকাল বৃহস্পতিবার অথবা শুক্রবার তাদের প্রস্রাবের রাস্তার নলও খুলে দেয়া হতে পারে।

শিশু দুটির বর্তমান অবস্থা সম্পের্ক জানতে চাইলে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের শিশু সার্জারি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক সাহনূর ইসলাম বিডি২৪লাইভকে বলেন, ওরা এখন ভাল আছে। আজ ওদের সেলাই কাটা হয়েছে। খাবার দাবার ঠিকমত চলছে। অন্য কোন সমস্যাও নেই। তবে আরো কয়েকদিন ওদের হাসপাতালে থাকা লাগবে।

পরবর্তী চিকিৎসা সম্পর্কে তিনি বলেন, ক্যাথেটার আছে, ক্যাথেটার খোলা হবে। প্রস্রাবের রাস্তায় নল দেয়া আছে ওটা খুলতে হবে। নল খোলার আগে গ্লাপ করা হয়। আমরা গ্লাপ করা শুরু করেছি। অবস্থা বুঝে আগামীকাল বা পরশু নল খোলা হবে হয়তো।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর তোফা ও তহুরার জন্ম হয়। গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার দহবন্দ ইউনিয়নের ঝিনিয়া গ্রামের রাজু মিয়া ও শাহিদা বেগমের জোড়া সন্তান তোফা ও তহুরা। গত ৭ অক্টোবর ৯ দিন বয়সে জোড়া শিশু দুটিকে চিকিৎসার জন্য ঢামেক হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করে জোড়া শিশু দুটির প্রাথমিক চিকিৎসা শুরু করা হয়।

print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


*

x

Check Also

3-11-388x291

রাজধানীর কামরাঙ্গীরচরে “শেখ হাসিনা নগর থানা” বাস্তবায়ন কমিটির মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

  ‘‘শেখ হাসিনা নগর’’ হিসেবে বাস্তবায়ন করার জন্য আপনাদেরকে সাথে নিয়ে আমি সর্বাত্বক চেষ্টা করব বলে মত প্রকাশ করেন সংগঠনের আহবায়ক এ্যাডভোকেট আবু সাঈদ খোকন(বাংলাদেশ সুপ্রিমকোর্ট)। “শেখ হাসিনা নগর’ থানা সংগঠন কর্তৃক আয়োজিত মতবিনিময় এবং আলোচনা সভা অনুষ্ঠানে হাজারো জনতার উপস্থিতিতে এমনই মত প্রকাশ করেন অনুষ্ঠানের সভাপতি, এবং সংগঠনটির আহাবায়ক আবু সাঈদ খোকন। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি বিজড়িত আমাদের কামরাঙ্গীচরে ১২ থেকে ১৪ লক্ষ মানুষ বসবাস করছে। আমাদের এলাকাটি এক সময় অবহেলিত জনপদ হিসেবে পরিচিত ছিল। কিন্তু বর্তমানে বাংলাদেশের যে কোন মেগাসিটির চেয়েও এখন আমরা অনেক উন্নত। আমাদের অবহেলিত এই কামরাঙ্গী চরকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর কন্যা দেশরত্ন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ ...

দেশের তাপমাত্রায় রেকর্ড : সর্বনিম্ন তেঁতুলিয়ায়

সারা দেশে শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে।শীতে কাঁপছে দেশ। চলমান শৈত্যপ্রবাহে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। দেশের ইতিহাসে সর্বনিম্ন তাপমাত্রার নতুন রেকর্ড করা হয়েছে।দেশের উত্তরের শেষ প্রান্ত পঞ্চগড় জেলার তেঁতুলিয়া উপজেলায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে। এর আগে ১৯৬৮ সালে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলায় দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়। এত দিন পর্যন্ত সেটাই ছিল দেশের সবচেয়ে কম তাপমাত্রার রেকর্ড। সোমবার আবহাওয়া অধিদপ্তর এ তথ্য জানিয়েছে। এ ছাড়া সৈয়দপুর জেলায় সোমবার দেশের দ্বিতীয় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে। এরপরই রয়েছে নীলফামারীর ডিমলা উপজেলায় সর্বনিম্ন ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। রাজধানী ঢাকায় ...

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com