ঢালাইয়ের ১ ঘণ্টার মধ্যেই ভেঙে পড়ল সেতু!

PPpiYu_Bri

সাতক্ষীরার তালা উপজেলায় নির্মাণাধীন সেতু ঢালাইয়ের কাজ শেষ হওয়ার এক ঘণ্টার মধ্যেই ভেঙে পড়েছে। গতকাল বিকেল ৪টার দিকে সেতুটি ভেঙে পড়ে। এতে স্থানীয়দের মাঝে নানা ধরনের প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে।

তাদের অভিযোগ, নিয়ম অনুযায়ী কাজ করা হয়নি। কাজ তদারকির দায়িত্ব ছিল যে কর্মকর্তাদের ওপর তারা ঠিকমতো সে দায়িত্ব পালন করেননি। শ্রমিকরা যেভাবে পারেন সেভাবেই কাজ শেষ করার চেষ্টা করে। এ কারণে সেতুটি ভেঙে পড়ে। কাজের নিয়ম অনুযায়ী, ঢালাই কাজ করার আগে তদারকি কর্মকর্তাকে নিয়ে কাজ দেখাতে হবে। এরপর তার উপস্থিতিতে ঢালাইয়ের কাজ করতে হবে। অথচ এ নিয়ম মানেননি ঠিকাদার। তিনি নিজের মতো কাজ করে ঢালাই দিয়েছেন।

তালা উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার তত্ত্বাবধানে প্রায় ১৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে উপজেলার শাহাপুর বাজারের ওপর দিয়ে প্রবাহিত খালের ওপর এ ব্রিজ নির্মিত হচ্ছে। পাইকগাছার ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চাঁদনী এন্টারপ্রাইজ সেতু নির্মাণের কাজ করছে।

ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের অংশীদার (পার্টনার) জাহাঙ্গীর আলম জানান, শাটারিং সরে যাওয়ায় ভেঙে পড়েছে। এতে কাজে কোন অনিয়ম হয়নি। সেখানে কর্মকর্তারা সবাই উপস্থিত ছিলেন।

print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


*

x

Check Also

095006Rangpur_KalerKantho

রংপুরে বাসচাপায় প্রাণ হারালেন অটোরিকশার ৩ যাত্রী

  রংপুর শহরের হাজীরহাট এলাকায় হানিফ পরিবহনের একটি বাসের চাপায় ইজিবাইকের ৩ যাত্রী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো ৩ জন। আজ রবিবার সকাল ৭টার দিকে হাজীরহাট ব্রিজ সংলগ্ন আকিজ কোম্পানির সামনের সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। জানা গেছে, ঢাকা থেকে ঠাকুরগাঁওগামী হানিফ এন্টারপ্রাইজের একটি নৈশকোচ ঘটনাস্থলে পৌঁছে যাত্রীবোঝাই একটি ইজিবাইককে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই দুইজন ও হাসপাতালে নেওয়ার পর একজন মারা যান। রংপুর কোতোয়ালী থানার এসআই মনোয়ার হোসেন সাংবাদিকদের কাছে এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেছেন, মরদেহগুলি উদ্ধার করে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ (রমেক) হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহতদের মধ্যে দু’জনের পরিচয় পাওয়া গেছে।

এক রুটিতে দিন পার করা সেই ছেলেটি আজ বিসিএস ক্যাডার!

বিসিএসের মৌখিক পরীক্ষায় যাওয়ার মতো ভালো কোনো পোশাক ছিল না ছেলেটির। এক বন্ধু তখন পাশে এসে দাঁড়ায়। আর চাকরি পাওয়ার আগ পর্যন্ত কোনো দিন সকালে নাশতা করেননি। শুধু দুপুরের দিকে পাঁচ টাকা দামের একটা পাউরুটি খেয়ে দিন পার করতেন। সেই ছেলেটিই আজ বিসিএস ক্যাডার। শুনুনু তাহলে অদম্য সেই ছেলেটির গল্প- আবু সায়েমের বাড়ি কুড়িগ্রামে। বাবা অন্যের জমিতে কাজ করতেন। সে আয়ে তিনবেলা ভাত জুটত না। বাড়তি আয়ের জন্য মা কাঁথা সেলাই করতেন। তারপর সে কাঁথা বাড়ি বাড়ি বিক্রি করতেন। কত দিন কত রাত সায়েম যে না খেয়ে কাটিয়েছেন, সে হিসাব নিজেও জানেন না। আজ সায়েমের কষ্টের দিন ঘুচেছে। ৩৫তম বিসিএসে ...

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com