আজ পবিত্র জুমাতুল বিদা

রমজান মাসের শেষ শুক্রবার আজ। আজ পবিত্র জুমাতুল বিদা। রমজান মাসজুড়ে রোজা রাখা আর ইবাদত-বন্দেগির পর জুমাতুল বিদার দিনে ধর্মপ্রাণ মুসলমান এই পবিত্র রমজান মাসকে বিদায়ের বার্তা জানাতে মসজিদে জুমার নামাজ আদায় করবেন। ইসলামিক ফাউন্ডেশন সূত্র জানায়, আজ জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে দেশ ও জাতির কল্যাণে এবং মুসলিম উম্মাহর ঐক্য ও শান্তি কামনায় বিশেষ মোনাজাত এবং দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হবে। তা ছাড়া দেশের সব মসজিদে জুমা শেষে বিশেষ মোনাজাত হবে। ইসলাম ধর্মে রমজানের শেষ জুমা হিসেবে মুসলিম উম্মাহর কাছে দিনটির বিশেষ গুরুত্ব ও তাৎপর্য রয়েছে। জুমাতুল বিদার ফজিলত অনেক বেশি। রমজান মাসের সর্বোত্তম রাত লাইলাতুল কদর, আর সর্বোত্তম দিন জুমাতুল বিদা। ইসলামের ইতিহাস থেকে জানা যায়, রমজান মাসের শেষ শুক্রবার হজরত সুলায়মান (আ.) জেরুজালেম নগরী প্রতিষ্ঠা করেন এবং মুসলমানদের প্রথম কিবলা ‘মসজিদ আল-আকসা’ প্রতিষ্ঠা করেন। এ জন্য প্রতিবছর সারা বিশ্বের মুসলমানরা রমজান মাসের শেষ শুক্রবারকে ‘আল কুদস’ দিবস হিসেবে পালন করেন। এবারও আল কুদস দিবস উপলক্ষে নানা আয়োজন করা হয়েছে।

print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


*

x

Check Also

প্রতিমা বিসর্জনের মধ্যদিয়ে দুর্গোৎসব শেষ হয়েছে

   রাজধানীসহ দেশব্যাপী শনিবার প্রতিমা বিসর্জনের মধ্যদিয়ে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজার সমাপ্তি ঘটে। গত ২৬ সেপ্টেম্বর মহাষষ্ঠীর মাধ্যমে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের দুর্গাপূজা শুরু হয়। এরপর যথাক্রমে মহাসপ্তমী, মহাষ্টমী ও মহানবমীতে হিন্দু সম্প্রদায়ের হাজার-হাজার নারী-পুরুষ ধর্মীয় নানা আচারাদি ও পুজা-অর্চণার মাধ্যমে দুর্গাদেবীর করুণা প্রার্থনা করেন। শনিবার বিজয়া দশমীতে ঢাকা মহানগরী ও এর আশপাশের এলাকার বুড়িগঙ্গা, তুরাগ, বালু ও শীতলক্ষ্যা এবং সারাদেশে বিভিন্ন নদ-নদী ও জলাশয়ে হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা দেবীদুর্গাকে বিসর্জন দেয়। বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের হিসাব অনুযায়ী, রাজধানীসহ দেশব্যাপী এবার ৩০ হাজার ৭৭টি মন্ডপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে রাজধানী ঢাকায় ২৩১টি পূজামন্ডপে পুজ-অর্চণা চলে। গত বছরের তুলনায় এবছর ৬৮২টি বেশি ...

Shab-E-Barat-2013-500x500

পবিত্র শবে বরাত

আরবি শাবান মাসের ১৪ তারিখ দিবাগত রাতটি মুসলমানদের কাছে পবিত্র ও মহিমান্বিত একটি রাত। রাতটি লাইলাতুল বরাত নামেও পরিচিত। এর অর্থ মুক্তি বা নিষ্কৃতির রজনী। পবিত্র এ রাতে একনিষ্ঠভাবে আল্লাহ তাআলার ইবাদত করলে, আল্লাহর কাছে নিজের পাপ-গুনাহ ও অন্যায়ের জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করলে তিনি তা কবুল করেন এবং অনুতপ্ত বান্দাকে গুনাহ থেকে মুক্তি দিয়ে তাকে মাফ করে দেন। এ ছাড়া নেক বান্দার সব দোয়া আল্লাহ কবুল করেন। বছর ঘুরে আবার এসেছে এই রাত। শবে বরাত সম্পর্কে মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) বলেছেন, ‘জিবরাইল (আ.) আমাকে বলেছেন, আপনি আপনার উম্মতদের জানিয়ে দিন, তারা যেন শবে বরাত রাতকে জীবিত রাখে।’ অর্থাৎ তারা যেন ...

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com